How to earn money from google Bangla

How to earn money from google Bangla | গুগল দিয়ে অনলাইনে অর্থ উপার্জন

আমরা অনেকেই গুগল এ সার্চ করি How to earn money from google Bangla. চলুন আজ জেনে নেই, কিভাবে ইনকাম করা যাই গুগল থেকে

এদেশে অনেকেই জানেন যে freelancing এর জন্য upwork, ফ্রিল্যান্সার, ইল্যান্স, ফাইভারের মত ওয়েবসাইটগুলোর সাথেও কম বেশি অনেকেই জানা আছে। কিন্তু আমি যদি বলি যে, আপনি এসব ওয়েবসাইটের থেকেও অনেক সহজভাবে গুগল থেকে টাকা ইনকাম করতে পারেন।

আপনি হয়তো ভাবছেন যে, আমি ভুল বলছি, কারণ গুগল থেকে ইনকাম করা ছেলের হাতের পুতুল নয়?

কিন্তু আমি সত্যিই ভুল) বলিনি। হ্যাঁ, আপনি যদিচান গুগল থেকে আয় করে আপনার ইচ্ছাকে বাস্তবে রুপ দিতে পারবেন। গুগলের এমন অনেক সেবাই রয়েছে যা ব্যবহার করে আপনি ঘরে বসেই প্রতিমাসে একটা ভাল পরিমাণ ইনকাম করতে পারবেন।

 

Google এর ফিচারগুলিকে ব্যবহার এ লাগিয়ে আয় করা সম্ভব। আর তার চেয়েও বড় কথা হচ্চে Google থেকে অনেক পরিমানে প্যাসিভ আয় করা সম্ভব। প্যাসিভ আয় কি এটা বোঝানোর জন্য একটা উদাহরণ দিচ্ছি।

ধরুন যে, আপনি একটি কোম্পানীর মালিক। এখন আপনি যদি ছুটিতেও যান, তবুও আপনার আয় হতে থাকে। কারণ আপনি না থাকলেও আপনার কর্মীরাও কাজ করে যাবে। Google এর প্যাসিভ আয়ের ধারণাটিও প্রায় একই রকম। এখানে কাজ না করলেও আপনার Article বার বার মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করতেই থাকবে আর ইনকাম হতে থাকবে। এখন চলুন জেনে নিই Google থেকে আয়ের আদ্যোপান্ত।

 

বিনামূল্যে কিভাবে অনলাইনে টাকা উপার্জন করবেন জানতে ক্লিক করুন 

গুগল অ্যাডসেন্স | Google AdSense:

ইন্টারনেটে আয় করার যতগুলি পদ্ধতি আছে তার মধ্যে google AdSense হচ্ছে সবচেয়ে ভাল একটি পদ্ধতি । গোটা পৃথিবীতে হাজার হাজার পাবলিশার এই ওয়েবটুলটিকে ব্যবহার করে প্যাসিভ আয় করে। এইমুহুর্তে আপনি সহজে এটি ব্যবহার করতে পারবেন। অনেকেরই না বুঝার কারণে ঠিক মতো website ম্যানেজ করতে পারে না বলে AdSense পায় না। তাই, google AdSense পাওয়ার উপায়গুলো জেনে নিয়ে তারপর apply করুন।

 

Google AdSense হচ্ছে এমন একটি অ্যাডর্ভাটাইজিং প্রোগ্রাম যার মাধ্যমে Google আপনার blog, ওয়েবাসইট, YouTube ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে। ভিজিটর যখন উচ্চ বিজ্ঞাপনগুলিতে ক্লিক করে তখন তার বিনিময়ে আপনাকে ইনকাম দেয়। এমনকি, ক্লিক না করলেও ইমপ্রেশন থেকেও google ইনকাম প্রদান করে থাকে।এই বিজ্ঞাপনগুলি আসে গুগলের AdWords প্রোগ্রাম থেকে যেখানে বিভিন্ন কোম্পানী নিজেদের বিজ্ঞাপন অর্থ্যের বিনিময় দিয়ে থাকে।

ইউটিউব ভিডিও ক্রিয়েটর | YouTube Content Creator:

বাংলাদেশসহ পুরো বিশ্বেই ইউটিউবের অনেক জনপ্রিয়তা দেখা যায়। মানুষ ভিজ্যুয়াল content এর প্রতি দিন দিন ঝুঁকে পড়ার জন্যে ইউটিউবের জনপ্রিয়তা এখন সবার কাছে। এছাড়া ভালো ভিডিও তৈরীর মাধ্যমে অনেকে ভিডিও create করে রাতারাতি সেলিব্রেটি হাতেও দেখা যায়। ইন্টারনেট ব্যবহারকারী অন্যান্য যে কোন website এর চেয়ে ইউটিউবে অনেক বেশি সময় দেন। এমন অনেকেই আছেন, যারা YouTube থেকে আয় করেন বছরে 10 মিলিয়ন ডলার।

 

YouTube পার্টনার প্রোগ্রাম ভিডিও ক্রিয়েটরদের তাদেরও নিজস্ব content মনেটাইজ করার সুযোাগ দেয়। ভিডিও চলার পথে যে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করা হয় তার উপর ইনকাম দেয়া হয়। সেই সাথে বিজ্ঞাপনগুলো তে যে ক্লিক পড়ে, তা থেকেও চ্যানেল মালিককে ইনকাম দেয়া হয়।

 

বিজ্ঞাপন থেকে আয় জেনারেট করাই YouTube থেকে ইনকাম করার প্রধান উৎস। আপনি যদি একজন ভিডিও creator হয়ে থাকেন, তাহলে আপনার ভর্জিটর কিভাবে ads দেখছে তার উপর নির্ভর করেই আপনি ইনকাম করবেন। এখন কিভাবে দেখছে আপনার ভর্জিটর এর মানে হচ্চে বিজ্ঞাপনে ক্লিক করা বা 30 সেকেন্ডর বেশি সময় ধরে ads দেখা ইত্যাদি।

How to earn money from google Bangla  from গুগল অ্যাড মব:

স্মার্টফোনের চাহিদা আজকাল যেভাবে বেড়ে চলেছে, সেটি দেখেও নিশ্চিতভাবে বলা যায় যে, apps মাধ্যমে কাজ করার সুবিধার কারণে অ্যান্ড্রয়েড চালিত স্মার্টফোনগুলি এখন সবার হাতের কিনারায়। আর এই চাহিদার কারণে আমরা দেখতে পাই যে প্রতিদিনই google প্লে ষ্টোরে হাজারো নতুন অ্যাপস আসছে।

 

মানুষের প্রয়োজনীয় বা মজার কিছু বিষয় নিয়ে আপনি চাইলে প্রাথমিকভাবে অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট করে সেটিকে গুগল প্লে ষ্টোরে পাবলিশ করতে পারেন । আপনার ইনকাম অনেকটা নির্ভরশীল আপনার অ্যাপটি কতবার ডাউনলোড হচ্ছে তার উপর। apps কতবার ডাউনলোড হচ্ছে তার উপর গুগল আপনাকে কোন ইনকাম দেবে না, কিন্তু আপনার apps এ যদি গুগল অ্যাড মব use করা হয়ে থাকে, সেখেত্রে ডাউনলোডকারী apps ব্যবহার করার সময়ে তাকে ads প্রদর্শন করানোর মাধ্যমে আপনি ইনকাম করতে পারবেন।

 

আপনি বলতে পারেন যে, আমি তো ডেভেলপার নই, আমি কি করে apps ডেভেলপ করবো! সমস্যা নেই, আপনার যদি শুধু আইডিয়া থাকে তবে আপনি যে কোন ডেভেলপারকে দিয়ে apps বানিয়ে নিতে পারেন। ভাল একজন অ্যান্ড্রয়েড apps ডেভেলপার খুঁজে নিন, তাকে আপনার আইডিয়াটি পুরোপুরি বুঝিয়ে দিন। এক সময় আপনার অ্যাপটি তার থেকে বুঝে নিন আর Google play তে আপলোড করে দিন।

Google থেকে আয় অন্য যে কোন ফ্রিল্যান্সিং

ওয়েবসাইটে কাজ করার চেয়ে আমার কাছে ভালো মনে হয়। আমি অনেককেই দেখেছি যারা পর্যাপ্ত পরিমাণ দক্ষ না হয়েও বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইটে প্রোফাইল খুলে কাজে বিড করে থাকেন। ফলে অল্পসময়ের মধ্যেই কাজ না পাওয়ার জন্যে তারা হতাশ হয়ে ফ্রিল্যান্সিং করাই ছেড়েদেয়।

তাযাইহোক, google থেকে আয় করার অনেক পথ রয়েছে কিন্তু তাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় পদ্ধতি আজকে আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করেছ । এছাড়া Google থেকে আপনি কত টাকা ইনকাম করবেন তার কোন নির্দিষ্ট সীমাও নেই। আর এ কারণেই অনলাইনে কাজ করার সবচেয়ে জনপ্রিয় প্লাটফর্ম হচ্ছে Google।

Related Posts

Leave a Reply

Advertisment ad adsense adlogger