দেখে নিন যেভাবে ইউটিউব এ কপিরাইট রিপোর্ট মারতে হয়।

প্রিয় ,
আসসালামু আলাইকুম। আশা করি ভালো আছেন। কারণ TrickRed.com এর সাথে থাকলে সবাই ভালো থাকে। আর আপনাদের দোয়ায় আমি ও ভালো আছি। তাই আজ নিয়ে এলাম আপনাদের জন্য আরেক টা নতুন টিপস। আর কথা বাড়াবো না কাজের কথায় আসি।

ইউটিউব নিয়ে আজকে আপনাদের বলবো, আসলে এই পৃথীবির সব থেকে বেষ্ট ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম এর নাম হলো ইউটিউব। এইখানে অনেক রকমের চ্যানেল আছে তারমানে অনেক রকমের ভিডিও আছে এই প্লাটফর্ম এ। ইউটিউব – কে গুগল কিনে নেয় বর্তমান ইউটিউব এর মালিক গুগল।

ইউটিউব এ রয়েছে অগণিত কনটেন্ট তৈরীকারী। তারা অনেক ইউনিক কনটেন্ট তৈরি করে অনেক কষ্ট করে আবার কিছু লোক আছে ভাইরাল ভিডিও গুলো অন্যের চ্যানেল এর বিনা অনুমতি – তে আপলোড করে নিজের চ্যানেল এ। এতে পড়ে ভিজিটর গুলো সমস্যায় পড়ে যান কোনটা আসল ভিডিও।

এই সমস্যা থেকে বাঁচতে ইউটিউব টিম তৈরি করে রেখেছে কপিরাইট সিস্টেম। একজন কনটেন্ট তৈরীকারি অনেক কষ্ট করে কনটেন্ট তৈরি করে এটার সমাধান হলো কপিরাইট দিয়ে ওই নকল ভিডিও ইউটিউব থেকে রিমুভ করানো। আর তিনটা কপিরাইট একই চ্যানেল এ লাগলে ওই চ্যানেল ডিজেবল হয়ে যাবে সারাজীবন এর জন্য।

বেশ কিছুদিন ধরে খেয়াল করা যাচ্ছে ইউটিউব কপিরাইট বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে ( ইয়ে মানে উরাধুরা ফেইক কপিরাইট ) আসলে স্প্যামার গুলো ফেইক কপিরাইট রিপোর্ট করে অনেক ভালো ভালো চ্যানেল ও ডিজেবল করে দিচ্ছে। যাই হোক আমি চাই সকলেই জানুক ইউটিউব কপিরাইট কীভাবে মারতে হয় শুক্রবার এবং শুক্রবার এক সপ্তাহ স্প্যামিং এ এসে নিজে – কে বড় স্প্যামার ভেবে বসে থাকা চেম্পার গুলো ভালো কাজে সিস্টেম গুলো ব্যবহার না করলে খারাপ কাজে ব্যবহার করে যার কারণে বাংলাদেশ থেকে ইউটিউবার গুলো দিনে দিনে কমে যাচ্ছে।

ডিয়ার এক সপ্তাহ এর চেম্পারগণ আজকে থেকে দেখবেন আপনি বলবেন “চ্যানেল এ কপিরাইট মারবেন” আর একজন বলবে “আপনার ডিভাইস – কে গুগল এর ব্লাকলিস্ট করে দিবো” কী দারুন মজা তাই না।

সকলেই মনে রাখবেন ক্ষতি না করে ভালো কাজ এ লেগে থাকুন ভালো লাগবে নিজের কাছেও ইউটিউব এ এমন অনেক খারাপ ভিডিও আছে ওইগুলো রিমুভ করার কাজে লাগে যান এখন চলুন শুরু করি, তার আগে মনে রাখবেন যে ব্রাউজার দিয়ে রিপোর্ট মারবেন ওই ব্রাউজার এ জিমেইল একাউন্ট লগইন করে নিবেন নইলে কপিরাইট মারতে পারেন না।

আপনি যে ভিডিও তে কপিরাইট মারতে চান ওই ভিডিও টার নিচে দেখুন Report অপশন আছে ওইখানে ক্লিক করুন।


এখন Infringes my rights সিলেক্ট করুন।


এখন Choose one এ ক্লিক করুন।


এখন Next এ ক্লিক করুন।


এখন Submit a copyright complaint এ ক্লিক করুন।


এখন Copyright infringement (Someone copied my creation) সিলেক্ট করুন।


এখন I am! সিলেক্ট করুন।


এখন URL of allegedly infringing video to be removed: এর বক্স এ ওই ভিডিও লিংকটা দেন, যে ভিডিও টা আপনি কপিরাইট রিপোর্ট মারবেন।


এখন Describe the work allegedly infringed: বক্স এর নিচের অপশন দেখুন Please select one: এ ক্লিক করুন।


এখন আপনার প্লাটফর্মটি খুঁজে সিলেক্ট করে দিন মানে আপনার আসল ভিডিওটা কেথায় আছে ওটা সিলেক্ট করুন।


এখন নিচের Screenshot দেখুন সুন্দর করে তথ্য গুলো পূরণ করুন।




এখন এইগুলো টিক মার্ক দিয়ে দিন, আপনার ইমেল এর সম্পন্ন নাম দিন এবং গুগল এর সিকিউরিটি reCAPTCHA Solved করুন এবং Submit Complaint এ ক্লিক করুন।


আপনার ইউটিউব কপিরাইট রিপোর্ট সাবমিট হয়ে গেছে, এখন যে ইমেল একাউন্ট থেকে রিপোর্ট মারলেন ওইটাই গিয়ে দেখুন নিচের Screenshot এর মতো ইমেল এসেছে।


এখন ইউটিউব টিম আপনার কপিরাইট রিপোর্ট রিভিউ করে দেখবে এবং দেখে ১০ অথবা ১২ ঘন্টা বা ২৪ ঘন্টার ভেতর রিভিউ দিয়ে দিবে আর যদি ভিডিও রিমুভ হয় নিচের Screenshot এর মতো দেখতে পাবেন আপনার কাছে এইরকম ইমেল আসবে।


বি.দ্রঃ এই কনটেন্ট সম্পূর্ণ শিক্ষার উদ্দেশ্যে। কোনো রূপ নীতি বিরুদ্ধ কাজের ক্ষেত্রে আমি বা ট্রিকরেড দায়ী থাকবো না।

তাহলে ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন TrickRed.com এর সাথে থাকুন। আর এ রকম নিত্যনতুন টিপস পেতে আমাদের সাথেই থাকুন, ধন্যবাদ।

2 Replies to “দেখে নিন যেভাবে ইউটিউব এ কপিরাইট রিপোর্ট মারতে হয়।

    1. কমেন্ট পড়ে খুব হাসলাম।। হা হা।। কোন সমস্যা নেই কপি পোস্টে আমরা এক পয়সাও দেই না।। 😁😂😁😂😁😂😁😁

Leave a Reply