কিভাবে কম্পিউটার থেকে ভাইরাস ও ম্যালওয়্যার দূর করবেন

How to remove Computer Malware in Bangla

ম্যালওয়ার বলতে খারাপ কিছু সফটওয়্যারকে বোঝানো হয় যে কম্পিউটারের ক্ষতি সাধন করেও থাকে। হ্যাকাররাও বিভিন্ন ধরণের computer malware ব্যবহার করে ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করে নেয়, অর্থ চুরি করে বা মালিকদের তাদের ডিভাইস এ অ্যাক্সেস করতে বাধাও দেয়। Computer malware in bangla সর্ম্পকে জানতে পড়তে থাকুন, “ম্যালওয়ার” হল একটি সাধারণ শব্দ যা প্রতিক্রিয়াশীল বা ঘৃণাত্মক সফটওয়্যারকে বুঝায়। একটি ম্যালওয়্যার ভাইরাস আক্রান্ত পিসি বা ল্যাপটপ যে সব বৈশিষ্ট্য প্রদান করে থাকে তার মধ্যে ধীর গতি, ভালোমতো কাজ না হওয়া, অনিচ্ছ্বা কাজ করা ইত্যাদি প্রধান। এই পোস্টে আমরা জানবো কীভাবে কম্পিউটার ভাইরাস ও ম্যালওয়্যারও দূর করা হয়।

কম্পিউটার ভাইরাস ও ম্যালওয়্যার

ম্যালওয়্যার এর মধ্যে কম্পিউটার ভাইরাস, 1-নসমওয়্যার, 2-ওর্মস, 3-ট্রোজান হর্স, 4-রুটকিট, 5-কী লগার, 6-ডায়ালার, 7-স্পাইওয়্যার ইত্যাদি হচ্ছে প্রধান। এসব ম্যালওয়্যার এর আক্রমণে অনেক সময় দেখা যায় পার্সোনাল ডাটা মিসিংও হয়। কখন কখন তা এমন কারো কাছে চলে যায় যা আপনার ক্ষতির কারণ হতেও পারে। তো চলুন জেনে নেওয়া যাক যে কীভাবে আপনার কম্পিউটার থেকে ভাইরাস ও ম্যালওয়্যার দূর করবেন।

এবার জেনে নেওয়া যাক কীভাবে আপনার কম্পিউটার থেকে ভাইরাস ও ম্যালওয়্যার দূর করবেন-

Step 1: Enter Safe Mode – computer malware in bangla

অবশ্যই আপনাকে ইন্টারনেট থেকে আপনার পিসির সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিতে হবে এবং আপনি যতক্ষণ না আপনার পিসি ক্লিন করার জন্য প্রস্তুতও না হচ্ছেন ততক্ষণ ইন্টারনেট ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন। কারণ হচ্ছে, এটি ম্যালওয়্যারকে আপনার ব্যক্তিগত ডেটা চুরি করতে সাহায্য করে।

আপনি যদি ভেবে থাকেন যে আপনার পিসিতে একটি ম্যালওয়ার সংক্রমণ রয়েছে, তাহলে মাইক্রোসফটের সেফ মোডে আপনার পিসি বুট করে ফেলুন। এই মোডে, শুধুমাত্র ন্যূনতম প্রয়োজনীয় প্রোগ্রাম এবং পরিষেবা লোড হয় মাত্র। সম্পন্ন লোড হওয়ার জন্য কোনও ম্যালওয়ারকে যদি সেট করা হয়ও, এই মোডে প্রবেশ করলে মোডটি এগুলি থেকে পিসিকে সম্পন্ন সুরক্ষা করতে পারে।

Step 2:Delete temporary files

আপনি সুরষ্কা মোডে থাকা অবস্থায় যদি ভাইরাস স্ক্যান করতে চান, তবে এটি করার আগে সাময়িক ফাইলগুলো মুছে দিন। এটি করার ফলে ভাইরাস স্ক্যানিং fast হবে, কিছু ডিস্ক স্পেসও ফ্রি হবে। এমনকি কিছু ম্যালওয়ার থেকেও সুরস্কা পেয়ে যাবেন।

Step 3:Download malware scanners

এখন আপনি একটি ম্যালওয়্যার স্ক্যানারকে তার কাজ করতে দিতে পারেন। ভাগ্যবশত, স্ক্যানার স্ট্যান্ডার্ড ইনফেকশন অপসারণের জন্য সম্পন্ন। যদি আপনার কম্পিউটারে একটি অ্যান্টিভাইরাস প্রোগ্রাম যদি থেকেও থাকে, তাহলে ম্যালওয়্যার চেক করার জন্য অন্য স্ক্যানার ব্যবহার করা উচিত।

মোবাইলকে সুরষ্কা রাখতে সেরা 2টি অ্যান্ড্রয়েড এন্টিভাইরাস অ্যাপ
দুই ধরনের অ্যান্টিভাইরাস প্রোগ্রামও আছে। এদের মধ্যে একটি হচ্ছে “রিয়েল-টাইম” অ্যান্টিভাইরাস প্রোগ্রাম যা background এ চলে এবং ম্যালওয়ারের জন্য ক্রমাগত নজরদারিও করে। অন্যটিআরেকর্টি হলো “অন-ডিম্যান্ড” স্ক্যানার, যা ম্যালওয়ার সংক্রমণের জন্য অনুসন্ধান করে থাকে, যখন আপনি manual প্রোগ্রামটি ওপেন করেন এবং স্ক্যান করেন।

যদি আপনার মনে হয় আপনার কম্পিউটার ম্যালওয়্যার দ্বারা অরক্ষায় ভুগছে, তাহলে প্রথমে “অন-ডিম্যান্ড” স্ক্যানার ব্যবহার করুন। তারপর “রিয়েল-টাইম” এন্টিভাইরাস প্রোগ্রাম দিয়ে ফুলস্ক্যান করে ফেলুন।

Step 4: Run a scan with Malwarebytes

প্রথম “Malwarebytes” সফটওয়্যারটি download করে নিন। কিন্তু যদি আপনি চিন্তায় থাকেন যে, আপনি ম্যালওয়্যার দ্বারা আক্রান্ত হয়েছেন, তাহলে আপনার কম্পিউটার থেকে internet এ না ঢুকাই ভালো হবে। সেক্ষেত্রে অন্য কোন কম্পিউটার এ Malwarebytes ডাউনলোড করে আপনার কম্পিউটারে নিয়ে run ইন্সটল করুন।

Malwarebytes স্ক্যানিং করার সময় অনেক ফাইল বা অবজেক্ট স্ক্যান করেছে তা দেখতে পারবেন এবং তার মধ্যে কতগুলো ম্যালওয়ার হিসাবে অথবা ম্যালওয়ার দ্বারা সংক্রমিত তাও উপস্থাপন করবে। একবার স্ক্যান শেষ হলে, Malwarebytes আপনাকে result দেখাবে। অপসারণ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য আপনার পিসি পুনরায় সুরু করার জন্য অর্থাৎ restart দেয়ার জন্য Malwarebytes আপনাকে অনুরোধ করতে পারে। যেটা আপনার করতে হবে।

Step 5: Install Anti-Virus Software

ক্ষতিকর ভাইরাস থেকে বাচতে হলে আপনার কম্পিউটারে অবশ্যই একটি ভালমানের অ্যান্টি ভাইরাস ইন্সটল run করা থাকতে হবে এবং সেটাকে অবশ্যই আপডেট রাখতে হবে। তা না হলে সেটি ভালোভাবে ভাইরাস সনাক্ত করতে পারবে না।

Avast, McAfee সহ আরও অনেক ধরণের অ্যান্টিভাইরাস পাওয়া যায়। আপনার কম্পিউটারকে সুরক্ষার জন্যে অন্যতম পদেক্ষেপ হিসাবে অবশ্যই একটি অ্যান্টি ভাইরাস ইন্সটল run করে দিন।

Install Anti Virus Software

আপনার পিসি বা ল্যাপটপটি যদি ক্ষতিকর ম্যালওয়ার দ্বারা সংক্রমণ হয়ে থাকে, তবে দেরি না করে দ্রুত কার্যকরী পদক্ষেপ নিন। কারণ আপনার পার্সোনাল ডাটা যদি এমন কারো হাতে পৌঁছে যায় যা আপনার ক্ষতির কারণও হতে পারে, তবে তা আপনার জন্য খারাপ খবর। কম্পিউটার ভাইরাস ও ম্যালওয়্যার দূর করার জন্যে কার্য্যকর পন্থাগুলো জেনেছেন, এখন নিজেই এগুলো অ্যাপ্লাই করে নিজের কম্পিউটারকে ক্লিন ও সুরক্ষিত করুন।

Leave a Comment

Advertisment ad adsense adlogger